পাতা

জেনারেল ম্যানেজার এর বাণী

 

বিসমিল্লাহির রহমানির রাহিম।

এলাকা ভিত্তিক পল্লী বিদ্যুতায়ন কার্যক্রমকে এগিয়ে নিয়ে যাবার লক্ষ্যে ১লা জানুয়ারী ১৯৭৮ সালে বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের কার্যক্রম শুরুর পর হতে এ পর্যন্ত সমগ্র দেশে ৮০ টি পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন এলাকা পল্লী বিদ্যুতায়ন কার্যক্রমের আওতায় এসেছে। এরই অংশ হিসাবে ২০১৫ সালের ২৭শে মে থেকে চাঁদপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২, চাঁদপুর জেলার ০৫ টি উপজেলা চাঁদপুর সদর, ফরিদগঞ্জ, মতলব দক্ষিন, মতলব উত্তর ও হাইমচর নিয়ে কার্যক্রম শুরু করে। শুরু থেকে অদ্যাবধি (নভেম্বর/২০১৬ পর্যন্ত) ০৪ টি উপকেন্দ্রের আওতায় ৩,৬০২.৪৬ কিঃমিঃ লাইন নির্মাণ করে বিভিন্ন শ্রেণীর প্রায় ২,২৪,০০২ জন গ্রাহক/পরিবারকে বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদান করেছে, যা প্রতিনিয়ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। সমিতি অত্র এলাকায় পল্লী বিদ্যুতায়ন কার্যক্রম, ভৌত অবকাঠামো উন্নয়ন সহ কৃষি ও শিল্প উৎপাদনে গতিশীলতা এনেছে। ফলে শিক্ষার হার বৃদ্ধি, স্বাস্থ্য সচেতনতা বৃদ্ধি সহ জন্ম নিয়ন্ত্রণ, গ্রামীণ জনপদে নারী-পুরুষ নির্বিশেষে কর্মসংস্থান বৃদ্ধি, নিত্য নূতন ছোট বড় শিল্প কারখানা গড়ে উঠে আর্থ সামাজিক অবস্থার আমূল পরিবর্তন ঘটাচ্ছে।

সমিতি এলাকায় এ আমূল পরিবর্তন সম্ভব হয়েছে দেশে সমন্বিত পল্লী বিদ্যুতায়ন কার্যক্রম বাস্তবায়নে সরকারের আন্তরিক সহায়তা এবং সমন্বয়কারী সংস্থা হিসাবে বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের সঠিক নেতৃত্ব দান। এক্ষেত্রে দাতা দেশ ও উন্নয়ন সহযোগী সংস্থার ঋণ অনুদান অনুঘটক হিসাবে কাজ করেছে। ভবিষ্যতে একই ধরণের সহায়তা সমিতি এলাকায় পল্লী বিদ্যুতায়ন কার্যক্রম সম্প্রসারণে সহায়ক ভূমিকা রাখবে বলে আশা করা যায়।

এ সুযোগে আমি সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানাই চাঁদপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর কার্যক্রমে তাদের সক্রিয় অংশ গ্রহণ এবং সহায়তার জন্য এবং আশা করি মহান আল্লাহর অনুগ্রহে এ কার্যক্রম আরো এগিয়ে যাবে এবং গ্রামের প্রতিটি জনপদে বিদ্যুতের আলো পৌঁছে দিয়ে অন্ধকারকে দূর করে আলোকিত সমাজ গড়বে।

 

 

মোহাম্মদ আবু তাহের

সিনিয়র জেনারেল ম্যানেজার

চাঁদপুর পল্লী বিদ্যুৎসমিতি-২

আমি এবং আমার অফিস দুর্নীতিমুক্ত

ছবি


সংযুক্তি



Share with :

Facebook Twitter